মেনু নির্বাচন করুন
Main Comtent Skiped

শিরোনাম
◙ বহেরাতলা দক্ষিণ ইউনিয়ন ডাকঘর
বিস্তারিত

বহেরাতলা পোষ্ট অফিস ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রনালয় এর আওতায় একটি সেবা মুলক প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে অত্র পোষ্ট অফিস এর সার্কেলের মধ্যে দেশে এবং বিদেশ থেকে প্রেরিত সকল চিঠিপত্র একজন পোষ্ট মাষ্টার ও একজন পোষ্ট পিয়ন কর্তৃক স্বল্প সময়ের মধ্যে কাংখিত ব্যক্তির নিকট প্রেরণ করেন। কালের পরিক্রমায় আজো বহেরাতলা দক্ষিণ ইউনিয়নের বহেরাতলা পোষ্ট অফিস তাদের সুনাম ধরে রেখেছেন।

ছবি
ডাউনলোড
label.column.field_office_cism

ক। সাধারন চিঠি পত্র গ্রহন, প্রেরন ও বিলি।

খ। রেজি চিঠি পত্র গ্রহন, প্রেরন ও বিলি।

গ। জিইপি চিঠি পত্র গ্রহন, প্রেরন ও বিলি।

ঘ। ই,এম ,এস চিঠি পত্র গ্রহন, প্রেরন ও বিলি।

ঙ। মনি অর্ডার গ্রহন, প্রেরন ও বিলি।

চ। পার্সেল গ্রহন, প্রেরন ও বিলি।

ছ। ভি পি পি গ্রহন, প্রেরন ও বিলি।

জ। পোস্টাল ও নন পোস্টাল স্ট্রাম্প বিক্রয়।

ঞ। ডাক জীবন বীমা।

ট। ডকঘর সঞ্চয় ব্যাংক সঞ্চয় পত্র বিক্রয় ও ভাংগানো।

ঠ। প্রাইজবন্ড ও পোস্টাল অর্ডার বিক্রয় ও ভাংগানো।

ড। ওয়েষ্টার্ন ইউনিয়ান মানি অর্ডার বিলি।

ঢ। ই এম টি এস এবং পোস্টাল ক্যাশ কার্ড জমা, উঠানো এবং বিক্রয়।

আর্থিক সেবা

ক্রঃ নং

ডাক সেবার ধরন

সেবা প্রদানের সময় সীমা।

০১

সঞ্চয় হিসাব/মেয়াদি/ সঞ্চয়পত্র

তাৎক্ষনিক ভাবে।

০২

সঞ্চয় হিসাব/মেয়াদি/ সঞ্চয় পত্র স্থানামত্মর 

অত্র অফিস থেকে অন্য জেলার অফিসে ১০ দিন।

০৩

মরনোত্তর দাবী নিষ্পত্তি

আবেদনের তারিখ থেকে ১ মাস।

০৪

মেয়াদ পুর্তি সেবা

ঝালকাঠি প্রধান ডাকঘরে সাথে সাথে এবং উপজেলা ও সাব অফিসে ১০ দিনের মধ্যে।

ডাক জীবন বীমা

ক্রঃ নং

ডাক সেবার ধরন

সেবা প্রদানের সময় সীমা

০১

পলিসি গ্রহন

পলিসি গ্রহন প্রক্রিয়া শুরম্নর ১ মাসের মধ্যে বীমা দলিল সরবরাহ

০২

হিসাব স্থানামত্মর

১৫ দিনের মধ্যে।

০৩

মরনোত্তর দাবী নিষ্পত্তি

আবেদনের তারিখ থেকে ০৩ মাস।

০৪

মেয়াদ পুর্তি সেবা

আবেদনের তারিখ ০১ মাস।

সিটিজেন চার্টার
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির সাথে তাল মিলিয়ে স্বল্প সময়ে এবং স্বল্প খরচে জনগণের দোরগোড়ায় ডাক সুবিধা পৌছে দেয়ার মাধ্যমে গ্রাহক সন্তুষ্টি অর্জন করা এবং সততা, বিশ্বস্ততা ও জনসেবার ব্রত নিয়ে ভৌত, আর্থিক,ইলেকট্রোনিকসহ সব ধরনের মানসম্মত সার্ভিস প্রদান করার মাধ্যমে বাংলাদেশ ডাক বিভাগকে বিশ্বমান সম্পন্ন প্রতিষ্ঠানে উন্নীত করা।
 
আমাদের উদ্দেশ্য (Our Mission) :
দেশের অভ্যন্তরে ও বিদেশে উচ্চমান সম্পন্ন ডাকসেবা প্রদানের মাধ্যমে গ্রাহক সন্তুষ্টি অর্জন। এ লক্ষে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের করণীয়ঃ
  • গ্রাহক চাহিদা পূরণের জন্য নিবেদিত হওয়া।
  • দক্ষ ও বিশ্বস্ত সেবা দানের লক্ষ্যে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা।
  • কর্মচারীদের মাঝে সেবা প্রদানের প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব এবং সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে গ্রাহকের সাথে সম্মানজনক আচরন করা।
  • দেশের সামাজিক অর্থনৈতিক অবস্থার প্রতি লক্ষ্য রেখে প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করা।
  • এলাকাভেদে দেশের সকল স্তরে মানসম্মত সেবা প্রদান করা
 
আমাদের সার্ভিসসমূহ (Our Services):

বাংলাদেশ ডাক বিভাগ জনসাধারণকে মূলত দুই ধরনের সার্ভিস প্রদান করে থাকেঃ-
১। মূল সার্ভিস  ২। এজেন্সী সার্ভিস।

মূল সার্ভিস

  • সাধারণ চিঠিপত্র
  • রেজিঃ চিঠিপত্র
  • জি ই পি
  • ই এম এস
  • মনিঅর্ডার
  • পার্সেল সার্ভিস
  • ভি পি পি
  • ভি পি এল
  • ডাকটিকেট বিক্রয়
  • ডাক দ্রব্য গ্রহণ, প্রেরণ ও বিলি।

এজেন্সী সার্ভিস

  • ডাক জীবন বীমা
  • সঞ্চয় ব্যাংক, সঞ্চয়পত্র বিক্রয় ও ভাঙ্গানো
  • প্রাজ বন্ড বিক্রয় ও ভাঙ্গানো
  • মোটরগাড়ীর ট্যাক্সটোকেন ও ড্রাইভিং লাইসেন্স ফি গ্রহণ ও নবায়ন
  • বিড়ি ব্যান্ডারোল মূদ্রণ ও বিক্রয়
  • টেলিফোন বিল গ্রহণ ও প্রি-পেইড কার্ড বিক্রয়
  • সরকারের সকল প্রকার নন পোস্টাল টিকেট মুদ্রণ ও বিতরণ
  • সরকারী সিদ্ধান্তক্রমে অন্য যে কোন সেবা।
 
আমাদের গ্রাহক ( Our Customers):
  • দেশের অভ্যন্তরে এবং দেশের বাইরে যে সকল নাগরিক ডাক সেবা গ্রহণ করে থাকেন
  • দেশের এবং বাইরের বিভিন্ন সরকারী বেসরকারী প্রতিষ্ঠান যারা ডাকের মাধ্যমে সেবা গ্রহণ করে থাকে
  • বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান যারা ডাক সার্ভিসের মাধ্যমে ডকুমেন্ট, পার্সেল প্রেরণ করে থাকে
  • সর্বোপরি ডাকের স্বার্থসংশ্লিষ্ট সকল পর্যায়ের, আধা-সরকারী,স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান ডাক বিভাগের সম্মানিত গ্রাহক
 
গ্রাহকের প্রতি আমাদের প্রতিশ্রুতি (Commitment to Customers) :
  • গ্রাহকের প্রতি আমাদের আছে শ্রদ্ধা, সৌজন্য ও সহযোগীতামূলক মনোভাব
  • সর্বোত্তম সেবা প্রদানের মানসিকতা
  • দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ডাক সেবা প্রদানের নিশ্চয়তা, ডাক দ্রব্যাদির নিরাপত্তা বিধান
  • আমানতকারীর আমানতের নিশ্চয়তা প্রদান
  • ডাক বিভাগ এলাকা নির্বিশেষে দেশের সকল জনগণের কাছে সার্বজনীন ডাক সেবা (চিঠি পত্র) পৌছে দিতে অঙ্গীকারবদ্ধ
 
ডাক সেবার সময়সীমা(Standard time of Services) :
সাধারণ ডাকসেবা
ক্রমিক নংডাক সেবার ধরণপ্রদানের সময়সীমা
সাধারণ চিঠি বিলি
শহরের অভ্যন্তরে পরের দিন, দেশের অন্যান্য শহরে ২ দিন এবং প্রত্যন্ত অঞ্চলে ৫ দিন
রেজিঃ চিঠি বিলি

শহরের অভ্যন্তরে পরের দিন, দেশের অন্যান্য শহরে ২ দিন এবং প্রত্যন্ত অঞ্চলে ৫ দিন

জি ই পি শহরের অভ্যন্তরে পরের দিন এবং দেশের অন্যান্য জেলা শহরে ২ দিন
ই,এম,এস

ডাকঘরের বুক করা ৩৬ ঘন্টার মধ্যে বিলিকারী ডাক প্রশাসনে পৌছানো

এয়ার পার্সেল

ডাকঘরে বুক করার পর ৭২ ঘন্টার মধ্যে বিলিকারী ডাক প্রশাসনে পৌছানো

মানি অর্ডার বিলি

শহরের অভ্যন্তরে পরের দিন, দেশের অন্যান্য শহরে ২ দিন এবং প্রত্যন্ত অঞ্চলে ৫ দিন

 
 
আর্থিক সেবা
ক্রমিক নংডাক সেবার ধরণপ্রদানের সময়সীমা
সঞ্চয় হিসাব /মেয়াদী হিসাব
প্রধান ডাকঘরে তাৎক্ষণিকভাবে। ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে ২০ মিনিট এবং কম্পিউটার প্রযুক্তিতে ৩ মিনিটে সেবা প্রদান করা হয়।
হিসাব স্থানান্তর

এক জেলা থেকে অন্য জেলায়; এক অফিস থেকে অন্য অফিসে ১০ দিন

মরনোত্তর দাবীআবেদনের তারিখ থেকে পরবর্তী একমাস
মেয়াদপূর্তি সেবা

জিপি ও প্রধান ডাকঘরে সাথে সাথে, উপজেলা অফিস, সাব অফিসও শাখা অফিসে আবেদনের ১০ দিনের মধ্যে

 
ডাক জীবন বীমা
ক্রমিক নংডাক সেবার ধরণপ্রদানের সময়সীমা
পলিসি গ্রহণ
পলিসি গ্রহণ প্রক্রিয়া শুরু করার এক মাসের মধ্যে বীমা দলিল সরবরাহ
হিসাব স্থানান্তর

১৫ দিনের মধ্যে

মরনোত্তর দাবীআবেদনের তারিখ থেকে তিন মাস
ঋণ গ্রহণ

আবেদনের তারিখ থেকে এক মাস

মেয়াদপূর্তি সেবা

আবেদনের তারিখ থেকে এক মাস

 

ডাক সেবা সম্পর্কে অভিযোগ দাখিল ( Complaint Relating Postal Service)

অভিযোগের ধরণকোথায় করতে হবে নিম্পত্তির সময়সীমা
চিঠিপত্র, মনিঅর্ডার,পার্সেল সংক্রান্ত।
সংশ্লিষ্ট পোষ্টমাস্টার অনুলিপি সংশ্লিশ্ট ডিপিএমজি
তাৎক্ষণিকভাবে প্রাপ্তিস্বীকার। তদন্ত পূর্বক ৩ সপ্তাহের মধ্যে ফলাফল অভিযোগকারীকে অবহিতকরণ
গুরুতর আর্থিক/ডাকসেবায় অনিয়ম
সিংশ্লিষ্ট ডিপিএমজি অনুলিপি পিএমজি

তাৎক্ষণিকভাবে প্রাপ্তিস্বীকার। তদন্ত পূর্বক ১ মাসের মধ্যে ফলাফল অভিযোগকারীকে অবহিতকরণ

নীতি নির্ধারণী বিষয়ের সাথে সম্পৃক্ত অনিয়ম
পিএমজি/ডাক অধিদপ্তর ৭ দিনের মধ্যে প্রাপ্তিস্বীকার। কার্যক্রম গ্রহণশেষে ৩ মাসের মধ্যে ফলাফল অভিযোগকারীকে অবহিতকরণ
 
মানসম্মত সার্ভিসসমূহ (Quality Services) :

দেশের অভ্যন্তরে গ্যারান্টিড এক্সপ্রেস পোস্ট (GEP) এর মাধ্যমে ডাকদ্রব্যাদি গ্রহণের পর দ্রুত পরিবহন করে ২৪ ঘন্টার মধ্যে প্রাপকের নিকট বিলি প্রদান করা হয়। এক্সপ্রেস মেইল সার্ভিস(EMS) এর মাধ্যমে দেশের বাইরে ৭২ ঘন্টার মধ্যে বিলি প্রদান করা হয়।

 
 

গ্রাহকের নিকট ডাক বিভাগের প্রত্যাশা ( Expectation From Our Clients):

  • ডাক দ্রব্যাদির উপর প্রাপক ও প্রেরকের পূর্ণ ঠিকানা স্পষ্টাক্ষরে লেখা
  • প্রাপকের ঠিকানায় পোষ্ট কোর্ড নম্বর উল্লেখ করা
  • রেজিষ্টার্ড(Registered), ইনসিওরড (Insured) জিইপি (GEP), ই এম এস (EMS) পার্সেল(Parcel) এর ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ফর্ম যত্ন ও সঠিক ভাবে পূরণ করা
  • ডাক দ্রব্যাদি ডাকঘরে দেওয়ার পূর্বে সঠিক ডাকমাশুল সংযুক্ত করা
  • অবৈধ দ্রব্যাদি ডাকে না দেওয়া
  • ডাক বিভাগের নির্ধারিত আকারের বাইরে ডাকদ্রব্যাদি বুক না করা
  • ডাকঘরে সুশৃঙ্খলভাবে লাইনে দাড়িয়ে ডাকদ্রব্যাদি বুক করা
  • প্রতিটি বহূতল ভবনের নীচে পোস্টবক্স স্থাপন করা
  • ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাঙ্ক মেইলের জন্য ব্যাক্তি / প্রতিষ্ঠানের নামে পোস্টবক্স ব্যবহার করা দ্বযে কোন ধরনের তথ্য ডাক বিভাগের ওয়েবসাইট থেকে সংগ্রহ করা
label.column.field_projects

ডাক বিভাগকে চাঙ্গা করতে স্বাধীনতার ৪৩ বছর পর ঢাকায় সদর দফতর নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। মৃতপ্রায় ডাক বিভাগকে প্রাণ দিতে চারটি চলমানসহ প্রায় ৮ শ’ কোটি টাকা ব্যয়ের পাঁচটি প্রকল্প সরকার হাতে নিয়েছে। প্রায় ৫৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হবে সদর দফতর ভবন। নিজস্ব সদর দফতর ছাড়াই এই রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানটি চলছে ৪৩ বছর ধরে। বেসরকারি কুরিয়ার সার্ভিসের সাথে আধুনিকায়নের প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে না পারলেও জনবল বাড়ানো হয়েছে ১৪ হাজার ১১২ জন বলে ডাক বিভাগ সূত্র জানিয়েছে।
প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, বহু পুরনো সেবাপ্রদানকারী প্রতিষ্ঠান হলো ডাক বিভাগ। কার্যক্রম তেমন একটা না থাকলেও দেশের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে এর অফিস রয়েছে। অধিদফতরটির চারটি জিপিও, ৬৭টি প্রধান ডাকঘর, ৪৮০টি উপজেলা ডাকঘর, ৮৬৫টি সাব-পোস্ট অফিস, ১১টি বিভাগীয় শাখা অফিস এবং ৮ হাজার ৪৬০টি এজেন্সি পোস্ট অফিসসহ মোট ৯ হাজার ৮৮৭টি ডাকঘরের মাধ্যমে পোস্টাল সংক্রান্ত সেবা দিয়ে আসছে। বেসরকারি কুরিয়ার সার্ভিস প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বাড়লেও বাড়ছে না সরকারি পোস্ট অফিসের সেবার মান।
১৯৭২-৭৩ সালে ডাক বিভাগের মোট কর্মকর্তা-কর্মচারী সংখ্যা ছিল ২৫ হাজার ৭৭৪ জন। বেসরকারি কুরিয়ার সার্ভিসের সাথে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে না পারায় এখন জনবল কমে গেছে। একের পর এক কুরিয়ার সার্ভিস প্রতিষ্ঠানের জন্ম হওয়ায় রাষ্ট্রায়ত্ত পোস্ট অফিসের প্রতি সাধারণ আগ্রহ কমে গেছে। এমনকি সরকারি অনেক চিঠিপত্রও এখন কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পাঠানো হচ্ছে। ফলে গ্রাহকসংখ্যাও কমে আসছে। বর্তমানে জনবল সংখ্যা ১৪ হাজার ১১২ জন বাড়ানো হয়েছে। ফলে এখন মোট জনবল হলো ৩৯ হাজার ৮৮৬ জন। ৪৫১ জন জনবল বৃদ্ধি করায় ঢাকার জিপিওতে এখন কর্মকর্তা-কর্মচারীর সংখ্যা ১ হাজার ৮৫২ জনে দাঁড়িয়েছে। কমিশন, সঞ্চয় ব্যাংক ও সঞ্চয়পত্র জমা-বিক্রি, পোস্টাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স, নন- পোস্টেজ স্ট্যাম্প, রাজস্ব স্ট্যাম্প বিক্রি, বিড়ি ব্যান্ডরোল বিক্রি এবং অন্যান্য খাত থেকে রাজস্ব আয় করছে।
ডাক বিভাগের তথ্যানুযায়ী, বেসরকারি কুরিয়ার সার্ভিস প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে প্রতিযোগিতায় টিকে থেকে গ্রাহকসংখ্যা বাড়ানোর জন্য ৭৩৭ কোটি ৬৬ লাখ ৭৫ হাজার টাকা ব্যয়ে চারটি প্রকল্প চলমান রয়েছে। এদের মধ্যে ৫৪০ কোটি ৯৪ লাখ টাকা ব্যয়ে পোস্ট ই সেন্টার গ্রামীণ কমিউনিটি প্রকল্প চলমান আছে। গত ২০১২ সালের ডিসেম্বরে প্রকল্পটি হাতে নেয়া হলেও চলতি বছরের মে পর্যন্ত বাস্তবায়নের হার মাত্র ১.১৪ শতাংশ। ব্যয় হয়েছে মাত্র ৬ কোটি ১৬ লাখ ২২ হাজার টাকা। আগামী এক বছরের মধ্যে প্রকল্পটি শেষ করতে হবে। একইভাবে বাস্তবায়নে দুরবস্থা গ্রামীণ ডাকঘরগুলোকে তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর করার প্রকল্পটিও। ২০১১ সালের জুলাইয়ে শুরু করলেও এখন পর্যন্ত মাত্র ২.১৪ শতাংশ বাস্তবায়নের হার। প্রকল্পটি শেষ করতে হবে আগামী এক বছরের মধ্যে। এই প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ১১২ কোটি ৯৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা।
আরো জানা যায়, ডাক বিভাগের কার্যপ্রক্রিয়া স্বয়ংক্রিয় করতে ২০০৮ সালে প্রায় ৫১ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্প শুরু করা হয়। ছয় বছরে এই প্রকল্পের অগ্রগতি ৫২.৭২ শতাংশ। অথচ প্রকল্প শেষ করতে হবে আর এক বছরের মধ্যে। একই সময়ে নেয়া হয় জরাজীর্ণ ডাকঘরগুলোকে নির্মাণ ও পুনর্নির্মাণের জন্য প্রকল্প। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে ডাকঘরগুলোর সংস্কারকাজ শেষ করার কথা। কিন্তু ডাক বিভাগের তথ্যানুযায়ী বাস্তবায়নের অগ্রগতি ৮২.২০ শতাংশ। আগামী ছয় মাসের মধ্যে শেষ হবে কি না সেটা নিয়ে পরিকল্পনা কমিশনের সন্দেহ রয়েছে।
৪৩ বছর পর এসে ডাক বিভাগের জন্য পৃথক সদর দফতর ভবন নির্মাণের চিন্তা হলো সরকারের। ডাক বিভাগ বলছে, পৃথক দফতর না থাকায় প্রশাসনিক ও পরিচালনা কার্যক্রম বিঘিœত হচ্ছে। জিপিওির তৃতীয়তলায় সদর দফতরের কাজ চলছে। শেরেবাংলা নগরে এই ভবনটি নির্মিত হবে। আর এটিকে ১৪ তলা বিশিষ্ট করা হচ্ছে।

যোগাযোগ

বহেরাতলা ডাকঘরটি এখন বহেরাতলা দক্ষিণ ইউনিয়নের বহেরাতলা বাজারে অবস্থিত, শিবচর, মাদারীপুর।